মুখের কালো দাগ দূর করার ১০ টি সহজ ও প্রাকৃতিক উপায়

ছেলেমেয়ে যেকোন বয়সী লোকদের মুখের কালো দাগ দেখা দিতে পারে। বিভিন্ন কারণে আমাদের মুখে কালো দাগ পড়তে পারে অথবা ব্রণের কারণে এ সমস্যা হয়।

আর এরা দূর করার জন্য আমরা অনেক সময় বিভিন্ন ধরনের কেমিক্যাল ব্যবহার করে থাকি। যা আমাদের শরীরের জন্য বা ত্বকের জন্য খুব ক্ষতিকর।

বাজারে বিভিন্ন ধরনের ক্রিম পাওয়া যায় যেগুলো ত্বক ফর্সা করতে সহায়তা করে। তবে দীর্ঘমেয়াদি ব্যবহারের ফলে এসব ক্রিম এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়।

তো এই পর্যায়ে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব প্রাকৃতিক উপায়ে কিভাবে আপনি মুখের কালো দাগ দূর করবেন।

মুখে কালো দাগ হওয়ার কারণ

ভিটামিনের অভাব : ত্বক সুন্দর রাখতে ভিটামিন এবিসি এর ভূমিকা অন্যতম।

আমাদের শরীরে এই ধরনের ভিটামিনের ঘাটতি দেখা দেয় তাহলে মুখের কালো দাগের মতো সমস্যা হতে পারে।

চর্ম রোগ জনিত কারণ: চর্ম রোগ জনিত কারণে মুখের কালো দাগ দেখা দেয়। আপনার শরীরের যদি বিশেষ চর্মরোগ থাকে।

এবং এগুলো যদি বিক্রমের সময় অবস্থান করে তবে ত্বক পুড়ে যায় এবং কালো হয়ে যায়।

জিনগত কারণ : ত্বকের রঙ অনেক সময় জিনগত কারণে ভিন্ন হতে পারে। সাধারণত মা বাবার গায়ের রঙের অনুপাতে সন্তানের শরীরের রং নির্ধারণ হয়ে থাকে।

তুমি কিছু ক্ষেত্রে এর ব্যতিক্রমও দেখা দেয়।

সূর্যের ক্ষতিকর আলোক রশ্নি : আমাদের তোমাকে যদি সরাসরিভাবে সূর্যের আলো পড়ে তবে আমাদের ত্বক কালো হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

বেশি করে অধিক তাপ এবং আলোতে যখন আমরা থাকি। তখন সরাসরি আমাদের ত্বকে সূর্যের আলো পড়ে এবং আমাদের ত্বক আস্তে আস্তে স্নান হয়ে যায়।

অতিরিক্ত ব্রণ এর কারণে : মুখের ব্রণের সব সময় হাত লাগালে এবং সেগুলো নষ্ট করার চেষ্টা করলে ত্বক কালো হয়ে যায়।

তাই ব্রণ যতই হোক না কেন তা ফুটিয়ে ফেলার চেষ্টা করবেন না।

আরো পড়তে পারেন

চুল পড়া বন্ধ করার ১০টি প্ৰকৃতিক উপায়

মাথা ব্যথা কমানোর ১০টি ঔষধের নাম

অনলাইন ইনকাম / টাকা ইনকাম করার সহজ উপায়

মুখের কালো দাগ দূর করার উপায়

মুখে কালো দাগ হওয়ার যে কারণগুলো উপর আলোচনা করা হয়েছে। সে কারণে আপনার মুখের কালো দাগ হলে নিচের কিছু পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

মুখের কালো দাগ দূর করার কিছু প্রাকৃতিক উপায়ে নিচে আলোচনা করা হলো।

লেবু এবং পানির মিশ্রণ

লেবু এবং পানির মিশ্রণ ব্যবহারে ত্বকের খুব কার্যকরী হবে কাজ করে।

এক দিন পর পর এই মিশ্রণ ব্যবহার করলে আপনার ত্বক এর কালো অংশ দূর হবে। এই সমস্যা সমাধানে লেবুর সাথে মধুর মিশ্রণ ব্যবহার করতে পারেন।

লেবুতে থাকে সাইট্রিক এসিড এবং ভিটামিন সি যা ত্বকের কালচে ভাব হালকা করে দেয়।

ত্বক ফর্সা করতে ফেস মাস্ক ব্যবহারের আপনি সাথে লেবু ব্যবহার করতে পারেন।

ত্বক ফর্সা করতে আলুর রস

আলু ভালোভাবে ধুয়ে তারপর ছেচে রস করে নিন। এবং সরাসরি এই রস মুখে লাগাবেন।

এভাবেই রস মুখে ১০ মিনিট রেখে দিবেন। এবং পরে ভালোভাবে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলবেন।

ত্বকের ফেস মাস্ক ব্যবহারের আপনি আলোর রশ্মি ব্যবহার করতে পারেন যা কার্যকরী।

ভিটামিন ই তেল

ত্বক ফর্সা করতে ভিটামিন ই তেল খুব সহায়তা করে। বিভিন্ন কারণে যাদের মুখের দাগ আছে ব্রণ জনিত কারণে মুখের কালচে ভাব দূর করতে এই তেল ব্যবহার করতে পারেন।

তবে যাদের ভিটামিন ই খেলে এলার্জি আছে তারা এটা ব্যবহার থেকে দূরে থাকবেন।

এছাড়া ভিটামিন ই জাতীয় খাবার খেয়েও আপনি এই সমস্যার কিছুটা সমাধান করতে পারবেন।

অ্যালোভেরার জেল

অ্যালোভেরা পাতা থেকে সরাসরি তৈরি তেল ব্যবহার করে আপনি মুখের কালো দাগ দূর করতে পারেন।

এছাড়া বাজারে যে ধরনের তেল এলোভেরা সমৃদ্ধ সেগুলো ব্যবহার করা যেতে পারে। এই তেল মুখের কালচে ভাব দূর করে।

এবং ব্রণ জনিত কারণে আপনার মুখের দাগ পড়লে সে দেখ হালকা করতে সহায়তা করবে।

ত্বক ফর্সা করতে লাইফস্টাইল

  • দিনে কমপক্ষে দুইবার ভালো মানের ফেস ওয়াশ দিয়ে মুখ পরিষ্কার করবেন।
  • বেশি রাত্রি জাগরন বন্ধ করেন কেননা বেশি রাত জাগলে মুখের কালচে ভাব আসে
  • ত্বক ফর্সা করতে উচ্চমাত্রায় কেমিক্যাল সমৃদ্ধ ক্রিম ব্যবহার বাদ দিন।
  • বয়সের ছাপ জনিত কারণে মুখের কালো দাগ দেখা দিলে নিয়মিত ব্যায়াম করেন।
  • পর্যাপ্ত পরিমাণে সবুজ শাকসবজি খাবেন এবং ভিটামিন জাতীয় খাবার গ্রহণ করবেন।
  • পর্যাপ্ত পরিমাণে নিরাপদ পানি পান করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *