মাথা ব্যাথা কমানোর ঘরোয়া উপায়

মাথা ব্যাথা

মাথাব্যথা দৈনন্দিন জীবনের একটি সুপরিচিত রোগের নাম যে রোগে আমরা কমবেশি সবাই ভুগে থাকি।

আরে মাথা ব্যাথার কারণে আমরা বিভিন্ন ধরনের ওষুধ সেবন করে থাকে যেগুলো আমাদের তাৎক্ষণিকভাবে মাথাব্যথা কমাতে সহায়তা করে কিন্তু এগুলোর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসেবে দীর্ঘমেয়াদি সমস্যা সম্ভাবনা থাকে।

মাথাব্যথা হলেই তাৎক্ষণিকভাবে কোনো ধরনের ঔষধ এন্টিবায়োটিক ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া সেবন করে প্রাকৃতিক উপায়ে যদি সম্ভব হয়।

তাহলে আমরা এভাবে মাথা ব্যথা দূর করার চেষ্টা করব। আজকের এই পর্বে আপনাদের সাথে আলোচনা করব কিভাবে আপনি প্রাকৃতিক বা ঘরোয়া উপায়ে মাথা ব্যথা নিরাময় করব মাথা ব্যাথা নিরবে পাশাপাশি আপনার মাকে সুস্থ রাখবেন।

মাথা ব্যথা হওয়ার কারণ

বিভিন্ন কারণে শরীরে মাথাব্যথা হতে পারে হয়ে মাথা ব্যথার কারণে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বিভিন্ন কাজে ব্যাঘাত ঘটতে পারে।

এবং ঘুমের সমস্যা হতে পারে পাশাপাশি কাজের সমস্যা হতে পারে তাই আমাদের যখন মাথাব্যথা হবে আমাদেরকে দিতে হবে কী কারণে মাথাব্যথা হল এবং মাথাব্যথা কোথা থেকে উৎপত্তি।

অনেক সময় দেখা যায় আমরা বেশি সময় কম পারি না এবং ঘুমের কারণে আমাদের মাথা ব্যথা দেখা দেয় আমরা অনেক রাত জাগি ঘুম পারি না।

তাই ঘুমের কারণে আমাদের যখন মতো হয়ে দেখা দেবে আমরা দেখব যে আমার রাতে কি পরিমান কম বয়সী রাতে যদি ঘুমিয়ে পড়বেন অত্যধিক কম হয়।

এবং চার-পাঁচ ঘণ্টা রকম হয় সে ক্ষেত্রে মাথাব্যথা দেখা দিতে পারে এবং দিনের বেলা ঘুমের কারণে উদ্দিন এবং এ ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে তাই আপনি চেষ্টা করবেন সবসময় মাথা ব্যাথা।

বর্তমান সময়ে ছেলে মেয়েরা অনেক রাত জেগে মোবাইল এবং কম্পিউটারের মধ্যে ডিভাইস ব্যবহার করে থাকে।

যেগুলো ব্যবহার হলে ঘুমের সমস্যা হয় বা মাথাব্যথা দেখা যেতে পারে তাই মাথাব্যথা-মাইগ্রেন যেকোনো ধরনের সমস্যা দেখা দিলে।

আপনি অবশ্যই এ ধরনের যন্ত্র ব্যবহার থেকে দূরে থাকবে রাতেরবেলা যতোটুকু সম্ভব হয়।

মাথা ব্যথা কমানোর প্রাকৃতিক উপায়

মাথাব্যথা হলে আমরা চেষ্টা করব প্রাকৃতিক উপায় এবং ঘরোয়া পরিবেশে সপরিবারে।

যে ধরনের উপাদান থাকে বা গাছগাছালি ধরেছেন- ধরনের উপাদান দিয়ে আমরা মাথা ব্যথা নিরাময় করার চেষ্টা করব।

বিভিন্ন ধরনের বাজারে অসুবিধা আছে যেগুলো আপনার খাওয়া থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করবেন।

আর ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কোন ধরনের ওষুধ খাবেন না এবং প্রাকৃতিক ঔষধ খাওয়ার চেষ্টা করবে না।

আজকে আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করব কিভাবে আপনি ঘরের বিভিন্ন উপাদান দিয়ে এবং বাড়ির আশেপাশের বিভিন্ন উপাদান দূর করে রাখবেন।

মাথাব্যথা কমাতে ঘুম

অনেক সময় দেখা যায় যে আমরা রাতে প্রচুর পরিমাণ সময় কোন জায়গা।

শেষ রাত পর্যন্ত কোন জাগিয়ে রকম দেখা যায় তার ফলে আমাদের মাথায় অনেক চাপ থাকে।

শরীরে উত্তেজনা বৃদ্ধি পায় এবং তাপমাত্রা বৃদ্ধি পায় যার ফলে আমরা মাথা ব্যথা হতে পারে এবং চোখের ব্যথা।

যখন আমরা এই ধরনের মাথাব্যথা এবং তখন আমরা চেষ্টা করব চোখ বন্ধ করে থাকে অথবা চেষ্টা করব।

পাশাপাশি মাথা ঠান্ডা রাখার জন্য চেষ্টা করব যেন আমাদের মাথা সুস্থ থাকে এই দিকে খেয়াল রাখব।

মাথা ব্যথা কমাতে পেঁয়াজের রস

পিয়াসারা নগর অতি পরিচিত এবং বেশি ব্যবহৃত একই মসলার নাম যেটা আমরা।

বিভিন্ন ধরনের রান্নার মসলা ব্যবহার বাড়ানোর জন্য আমরা ব্যবহার করে থাকি তবে স্বাস্থ্য উপকারিতা। রান্নার স্বাদ।

বাড়ানোর পাশাপাশি পেঁয়াজ আমাদের স্বাস্থ্য উপকারিতা হিসেবে কাজ করে যেমন আমরা মাথাব্যথা কমাতে পেঁয়াজের রস পান করতে পারে।

এটা আমাদের বাপ-দাদা কমাবে সামান্য পরিমাণে পেঁয়াজের রসের সাথে একটু পানি মিশিয়ে পান করলে।

মাথাব্যথা কমে যেতে পারে এভাবে আপনি দিতে পারেন যখন মাথা দেখা দিবে তখনই থাকবে।

আরো পড়তে পারেন

চুল পড়া বন্ধ করার ১০টি প্ৰকৃতিক উপায়

মাথা ব্যথা কমানোর ১০টি ঔষধের নাম

অনলাইন ইনকাম / টাকা ইনকাম করার সহজ উপায়

মাথা ব্যথা কমাতে পানির ভূমিকা

অনেক সময় দেখা যায় যে আমরা পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করে না যার ফলে আমাদের শরীরে পানির অভাব দেখা দেয়।

এবং আমরা পানি শূন্যতায় ভোগে আর এদের কারণে আমাদের শরীরে মাথাব্যথার কারণ হতে পারে।

এবং মাথাব্যথা হলে আমরা প্রচুর পরিমাণে পানি পান করবে সেটা আমাদের দরকারি এবং এই পানি যখন আমাদের জীবন বাঁচাতে পারে সে ক্ষেত্রে আমরা অবশ্য নিরাপদ পানি পানি পানি আমাদের শরীরের ঘাটতি পূরণ করে এবং শরীরকে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে।

মানসিক চাপজনিত কারণে মাথাব্যথা

বর্তমান সময়ে বিভিন্ন কারণে মানুষের মধ্যে মানসিক চাপ তৈরি হয়েছে অধিক পরিমাণে যার ফলে আমরা অনেক সময় দেখা যায় যে মানসিকভাবে বুকে থাকে এবং মানসিক চাপ আমাদের মাথা ব্যাথা বাড়াতে সহায়তা করে এবং মাথা অত্যন্ত ব্যথায় ভুগে তাই আমরা চেষ্টা করব সব সময় মাথা কে সুস্থ রাখার জন্য মাথাব্যথা মুক্ত রাখতে চাপ মুক্ত থাকা এবং চাপে থাকার জন্য সবসময় সতেজ এবং সুস্থ থাকতে হবে।

সর্দি জ্বর জ্বর মাথাব্যথা

শরীরে বিভিন্ন ধরনের সর্দি জ্বর ঠান্ডা লাগলে আমাদের মাথাব্যথা দেখা দিতে পারে। তাই আমাদের যখন শরীর ঠান্ডা জ্বর দেখা দেবে তখন আমরা প্রাকৃতিক উপায় বা সঠিক নিয়মে আমরা এই ধরনের সর্দি-জ্বর নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করব। সর্দি-জ্বর নিয়ন্ত্রণে থাকলে আমাদের মাথা ব্যথা কমে যাবে এটা আমাদের বসতে হবে যখন সর্দি-জ্বর দেখা দিবে তখন নিজেকে সুস্থ রাখতে প্রাকৃতিক ঔষধ গ্রহন করব।

বিভিন্ন ঔষধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসেবে মাথাব্যথা

শরীরে বিভিন্ন ধরনের রোগ যখন বাসা বাঁধে আমরা যখন বাজার থেকে বাদ দোকান থেকে নানান ধরনের ঔষধ সেবন করে থাকে যে ধরনের ওষুধের রয়েছে বিভিন্ন ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া এবং এর প্রতিকার হিসেবে আমাদের মাথাব্যথা দেখাইতে পারে।

তাই বাজার থেকে যে কোন ঔষধ খাওয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ সর্তকতা অবলম্বন করব যেন আমাদের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হিসেবে মাথাব্যথা।

না বেড়ে যেতে পারে সেদিকে খেয়াল রাখব। আমাদের শরীরের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রয়োজনীয় একটি অঙ্গ হল মাথা এবং মাথার কারণে আমরা বিভিন্ন ধরনের সমস্যায় ভুগে থাকে। শরীরের অন্যান্য অঙ্গ প্রতঙ্গের তখনই ভালো থাকো যখন আমরা সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারব আর সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য প্রয়োজন একটি সুস্থ মাথা আর সুস্থ মাথায় রাখতে পারে আমাদের সবসময় সুস্থ এবং সবল প্রত্যেকটা মানুষের জন্যকাম্য ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *