ডিজিটাল মার্কেটিং কি / ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার উপায়

ডিজিটাল মার্কেটিং

কোন কিছু বিক্রি করা বা প্রচার করার জন্য আমরা যদি কোনো আধুনিক প্রযুক্তির ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকি , তাহলে আমরা সেটাকে ডিজিটাল মার্কেটিং বলতে পারি।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনেক ধরনের শাখা আছে। আপনি ছুটো ছুটো কিছু কাজ শেখার মাধ্যমে ডিজিটাল মার্কেটিং করতে পারবেন।

সাধারণত অফলাইনে যখন কোন বিক্রেতা বা সংস্থা তাদের পণ্যের বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে বা মানুষের মাঝে প্রচার করে থাকে। সেই ধরনের প্রচার প্রচারণা বা নিজের পণ্য বিক্রি করার যে মাধ্যম বা পদ্ধতি অবলম্বন করি সেটা হচ্ছে অনলাইন মার্কেটিং।

আর আমরা এই মার্কেটিং তাই যখন ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে প্রচার করব তখন এটা হবে ডিজিটাল মার্কেটিং। ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার জন্য আপনার তেমন বেশি শিক্ষাগত যোগ্যতার দরকার নেই। হাতে কলমে সাধারণ জ্ঞান এবং বেসিক ইংরেজি থাকলেই আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং করতে পারবেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার উপায়

এই কাজ এ অনেক ধরনের কাজ আছে আপনি চাইলে তার মধ্যে যেকোনো একটি কাজ শিখব কিন্তু মার্কেটপ্লেসে কাজের জন্য আবেদন করতে পারবেন এবং কাজ করতে পারবেন তবে আপনি চাইলে সবকটি কাজে শিখতে পারবেন। ডিজিটাল মার্কেটিং এর যে ধরনের কাজ পাওয়া যায় তার মধ্যে হচ্ছে , ফেসবুক মার্কেটিং , এসইও , টুইটার মার্কেটিং, সিপিএ মার্কেটিং , ই-কমার্স ইত্যাদি।

এই কাজটি শেখার জন্য আপনি আপনার নিকটস্থ এলাকায় যদি কোন আইটি পয়েন্ট থাকে সেখান থেকে আপনি শিখে নিতে পারবেন।

অথবা বিভিন্ন জনপ্রিয় ইন্টারনেট সেবাদানকারী সংস্থা যেগুলো প্রযুক্তিবিষয়ক অফিস তৈরি করেছে তাদের কাছ থেকে আপনি অনলাইনে কোর্স করতে পারবেন।

অথবা সরাসরি তাদের কাছে গিয়েও কোর্স করতে পারবেন। এছাড়া আপনি যদি ইউটিউবে সার্চ করেন ডিজিটাল মার্কেটিং লেখে তাহলে অনেক কোর্স পাবেন।

যেগুলো শুধুমাত্র ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন। এবং এই ক্লাসগুলো করার মাধ্যমে আপনি কিছুটা হলেও সাধারণ জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন।

এবং অনেক ভিডিও ক্লাস ইউটিউবে আছে যেগুলো প্রিমিয়াম ক্লাসের মতোই যোগ্যতাসম্পন্ন। এই ক্লাসগুলো করার জন্য আপনার এক থেকে দুই মাস সময় লাগতে পারে।

হাতে কি মোবাইল অথবা কম্পিউটার থাকলে আপনি এ কাজ শিখতে পারবেন। তবে প্রফেশনালি কাজ করার জন্য আপনাকে একটা কম্পিউটারের ব্যবস্থা করতে হবে এবং পাশাপাশি থাকতে হবেই ওয়াইফাই কানেকশন এর ব্যবস্থা যার মাধ্যমে আপনি সব সময় ইন্টারনেট এর সাথে যুক্ত থাকতে পারবেন।

এই কাজের ভবিষ্যৎ

আপনি যদি অনলাইনে ভবিষ্যত নিয়ে চিন্তা করেন এবং ভবিষ্যতে আপনারা কি ইনকামের বড় ধরনের সুবিধা হোক এই চিন্তা করে থাকেন তাহলে ডিজিটাল মার্কেটিং হতে পারে আপনার পছন্দের একটি অন্যতম কাজ। কারণ এই কাজ শিখলে শুধুমাত্র অন্যের কাজ করতে হবে তাই নয় আপনি চাইলে আপনার নিজের ব্যবসার প্রচার করতে পারবেন এবং কোন ই কমার্স ওয়েবসাইট থাকলে সেখানে পণ্য বিক্রি করতে পারবেন।

অনলাইনে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখলে আপনি যখন অফলাইন বা বিভিন্ন বাজারে মার্কেটিংয়ের কাজ করতে যাবেন তখন এই দক্ষতা কাজে লাগাতে পারবেন কারণ মার্কেটিং করতে হলে যে ধরনের দরকার হয় আপনি সেখানে শিখতে পারবেন এবং বাস্তব জীবনে কাজে লাগাতে পারবেন। যেমন আপনি যদি এসইও শিখেন সে ক্ষেত্রে আপনি নিজের ওয়েবসাইট কেউ কিন্তু ওরা ইন করাতে পারবেন এবং সেই অ্যাংকর ওয়েবসাইটে কিন্তু আপনি অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন এক্ষেত্রে অন্যের কাজ করতে হবে না।

ডিজিটাল মার্কেটিং বাংলাদেশ

অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কাজের চাহিদা বাংলাদেশ দিনে দিনে বাড়তেছে সেইসাথে বাড়তাছে ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজের চাহিদা আপনি যদি বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে এই কাজ এর বিভিন্ন কাজ নিয়ে সার্চ করেন তাহলে দেখতে পারবেন যে বাংলাদেশে অনেক লোক আছে যারা এই সেবা দিয়ে থাকে এবং বিভিন্ন ধরনের অফলাইনেও তারা এ ধরনের সেবার বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে।

শুধু মার্কেট প্লেসে নয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন সাধারণ ব্যবহারকারীরা নিম্ন মানের সেবা প্রদান করে থাকে। এক্ষেত্রে তারাও কিন্তু অনলাইন মার্কেটিং দিতেছে যেমন আপনার একটা ফেসবুক পেজকে তারা যদি প্রমোট করে দেয় সেটা হবে ডিজিটাল মার্কেটিং অথবা আপনার ফেসবুক পেজে যদি একটা লাইক এনে দেয় সেটাও হবে।

এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটা অংশ আমরা অনেক সময় ফেসবুকে দেখে থাকি অনেক ধরনের লাইক কমেন্টের ব্যবসা করা হয়। কারণ যখন আমাদের পোষ্টে বা ভিডিওতে লাইক বেশি পড়বে তখন কিন্তু আমাদের ভিডিওটা বেশি মানসম্মত হবে আর যখন আমরা কোনো কিছু মানুষের কাছে পৌছে দিতে চাইবো তখন অবশ্যই আমাদেরকে এটা মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে আগাতে হবে।

আরো পড়তে পারেন

অনলাইন ইনকাম / টাকা ইনকাম করার সহজ উপায়

অনলাইন জন্ম নিবন্ধন তথ্য যাচাই

গ্রামীণফোন ইন্টারনেট প্যাকেজ ২০২১

ডিজিটাল মার্কেটিং এর চাহিদা

বর্তমানে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা যে হারে বাড়ছে তাতে করে ভবিষ্যতে এত পরিমান ব্যবসা হবে। যে এগুলো প্রচার করার জন্য অনেক লোকের প্রয়োজন হবে।

সে ক্ষেত্রে ব্যবসার মালিক কর্তৃপক্ষ তারা নিজেরা প্রচার করতে সবসময় পারবে না।

এবং তারা চাইবে কোন একজন বা কোন একটি গোষ্ঠীর মাধ্যমে তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রচার করা।

আর এই প্রচারের দায়িত্ব দিয়ে থাকবে ডিজিটাল মার্কেটারদের।

তাই আমরা বলতে পারি ভবিষ্যতে এই কাজ মার্কেটারদের কাজের চাহিদা কমার কোন সম্ভাবনা নেই।

বরং যুগের পরিবর্তনের সাথে সাথে যত আধুনিক প্রযুক্তি আসবে সেই সাথে ডিজিটাল মার্কেটিং এর চাহিদা তত্ত্ব পরিমাণ বাড়বে। কারণ যত ব্যবসা বাড়বে তত প্রচার বাড়বে আর প্রচার বাড়াতে হলে মার্কেটিং এর দরকার আছে।

মার্কেটিং এর সুবিধা

এই কাজ কাজ শিখার অনেকগুলো সুবিধা আছে তার মধ্যে অন্যতম একটি সুবিধা হল আপনি চাইলে যখন ইচ্ছা কাজ শিখতে পারবেন।

এটা করার জন্য তেমন ভাল মানের কনফিগারেশনের কম্পিউটারের দরকার হয় না সাধারণত আমরা যদি কোন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট বা অন্য কোন কাজ করতে চাই। দেখা যায় যে পিসি কনফিগারেশন টা আমাদেরকে যাচাই করতে হয় সেটা উন্নতমানের কিনা তবে এই কাজে এ তেমন কোন দরকার হয় না।

সাধারন একটি ল্যাপটপ বা কম্পিউটার আপনি কাজটি করতে পারবেন। আপনি সারাদিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে সময়টা দেন সেই সময় টা দিয়েই আপনি এই মার্কেটিং থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার জন্য কোন ধরনের আলাদা ভাষা বা কোডিং শেখার লাগেনা।

আমাদের কোন ধরনের বিশেষ্য সফটওয়্যার ব্যবহার শিখে লাগে না সেজন্য আমরা এটা সহজেই শিখতে পারবে।

এবং অনলাইনে যে ধরনের কাজ আছে আউটসোর্সিংয়ের তার মধ্যে এই অনলাইন মার্কেটিং সহজ একটি কাজ এবং এটি লাভজনক।

One Comment on “ডিজিটাল মার্কেটিং কি / ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার উপায়”

  1. অনেক ধন্যবাদ এত সুন্দর করে উপস্থাপনা করার জন্য। আপনার ব্লগটিতে এরম আর উৎকৃষ্ট মানের পোস্ট পাব এই আশা করলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *